fbpx
31.3 C
Barisāl
Tuesday, June 22, 2021

খাঞ্জাপুর ইউনিয়নে চাচার হামলায় ভাতিজা নিহত: গ্রেপ্তার ১

ভিজিডি কার্ডের মালামাল নিয়ে বিরোধের জের ধরে চাচার হামলায় ভাতিজা নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা দায়েরের পর পুলিশ একজনকে গ্রেফতার করেছে।

নিহত রামিন মৃধা (২১) বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের কমলাপুর গ্রামের সান্টু মৃধার ছেলে।

বুধবার (১৯ মে) দুপুরে তার মরদেহের ময়নাতদন্ত বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতাল মর্গে সম্পন্ন করা হয়েছে।

এরআগে মঙ্গলবার (১৮ মে) দিনগত রাতে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা নেওয়ার পথে রামিনের মৃত্যু হয়।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় ইউপি সদস্য সম্প্রতি মিন্টু মৃধার নামে ভিজিডি কার্ড বরাদ্দ করে কার্ডের মালামাল (চাল) রামিন ও মিন্টুর মধ্যে ভাগবাটোয়ারা করে নেওয়ার জন্য বলেন।

কিন্তু মিন্টু তার নামে বরাদ্দকৃত কার্ডের মালামাল উত্তোলন করে একাই ভোগ করে আসছিলেন। এ নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে মিন্টু ও তার ভাতিজা রামিনের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়।

এ ঘটনার জের ধরে মিন্টু ও তার সহযোগিরা এক সন্তানের জনক রামিন মৃধাকে পিটিয়ে গুরুত্বর আহত করেন। মুমূর্ষু অবস্থায় ওইদিন সন্ধ্যায় রামিন মৃধাকে প্রথমে গৌরনদী ও পরে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে শেবাচিম হাসপাতাল থেকে রাতেই উন্নত চিকিৎসার জন্য রামিনকে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেন স্বজনরা। কিন্তু পথেই তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী রুমা বেগম বুধবার (১৯ মে) সকালে বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মিন্টু মৃধা ও তার বড় ভাবি রওশনারা প্রতিমাসে ভিজিডি চাল বণ্টন করে নিতেন। গতকাল মঙ্গলবার রওশনারা ছেলে রামিন ও রাজিব মৃধা তাদের চাচা মিন্টু মৃধার কাছে ভিজিডি কার্ড ফেরত চান। এ নিয়ে উভয়পক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয় এবং মারামারির ঘটনা ঘটলে বেশ কয়েকজন আহতও হয়। এ সময় রামিন মৃধার মাথায় চাচা মিন্টু মৃধা কাঠি দিয়ে আঘাত করলে তিনি গুরুতর আহত হন। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথেই মারা যান রামিন।

এ বিষয়ে গৌরনদী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো. তৌহিদুজ্জামান বলেন, তাৎক্ষণিক পুলিশ অভিযান চালিয়ে এজাহারভুক্ত আসামি তোফাজ্জেল মৃধাকে গ্রেফতার করেছে। পাশাপাশি এজাহারভুক্ত অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান চলছে।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ