fbpx
27.9 C
Barisāl
Wednesday, December 1, 2021

গৌরনদীতে যুবলীগের ওপর হামলার অভিযোগ এনে বিএনপির ৪৬ নেতাকর্মীকে আসামি করে মামলা দায়ের

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার শরিকল ইউনিয়নের শরিকল বাজারে যুবলীগ নেতার চাউলের আড়তে হামলা, পিটিয়ে আহত ও ক্যাশ বাক্সের টাকা লুটের অভিযোগ এনে যুবলীগের ১ নেতাসহ স্থাণীয় বিএনপি ও তার সহযোগী সংগঠনের ১৬ নেতাকর্মীর নামোল্লেখ করে বিএনপির ৪৬ নেতাকমীকে আসামি করে গৌরনদী মডেল থানায় মারামারি ও বিস্ফোরক আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। রবিবার সকালে উপজেলার শরিকল ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ও মহিষা গ্রামের বাসিন্দা জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা বাদি হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলার এজাহারভূক্ত আসামিরা হলো- উপজেলার শরিকল ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর মৃধা, ইউনিয়ন যুবলীগের নেতা খোকন মৃধা, উপজেলা যুবদলের সহ-সভাপতি কামাল হোসেন ওরফে বিপ্লব মুন্সী, যুবদল কর্মী রনি মৃধা, লিমন খান, রানা মৃধা, দুলাল খান, সুমন মৃধা, সজীব খান, ইউনিয়ন কৃষকদলের সদস্য ফারুক মৃধা, সাইদুল খান, ছাত্রদল কর্মী লিটু মৃধা, পিয়াল, কিরন মৃধা, রাকিব মুন্সী, শিমুল হাওলাদার।
মামলার এজাহারে উল্লেখ রয়েছে, জমি ও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আসামিদের সাথে বাদী ও তার সহোদর ভাইদের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। পূর্ব বিরোধের জেরধরে আসামি খোকন মৃধার নেতৃত্বে সকল আসামিরা লোহার রড় ও লাঠিসোটা নিয়ে গত ১৬ এপ্রিল সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে শরিকল বাজারে বাদির সহোদর ভাই নাসির মোল্লার চাউলের আড়তে বেআইনি ভাবে প্রবেশ করে। পূর্ব বিরোধের জেরধরে আসামিরা বাদির ভাই চাল ব্যবসায়ী নাসির মোল্লাকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। তখন নাসিরের ডাকচিৎকারে তাকে উদ্ধারের জন্য লিকসন মোল্লা, সুজন সরদার, জুয়েল মোল্লা, শান্ত মোল্লা, ইমরান মোল্লা এগিয়ে আসলে আসামিরা তাদেরকেও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম ও নাসির মোল্লার ক্যাশ বাক্স থেকে সাড়ে ৫ লক্ষাধিক টাকা লুট করে। আহতদের প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ৪/৫ জন আসামি হাতবোমা বিস্ফোরণ ঘটায়।
ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর মৃধা অভিযোগ করে বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য ইউনিয়ন বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের এ মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে হয়রানি করা হচ্ছে। রাস্তা কাটার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ১৬ এপ্রিল সন্ধ্যায় উপজেলার শরিকল বাজারে ইউনিয়ন যুবলীগের নেতা নাসির মোল্লা ও অপর যুবলীগের নেতা খোকন মৃধার গ্রুপের মধ্যে হামলা-পাল্টাহামলা ও সংঘর্ষে যুবলীগের ১২ নেতাকর্মী আহত হয়েছে। খবর পেয়ে শরিকল তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
গৌরনদী মডেল থানার ওসি মুনিরুল ইসলাম মুনির জানান, শরিকল ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জাহাঙ্গীর মৃধার নেতৃত্বে স্থানীয় বিএনপির নেতাকমীরা ১৬ এপ্রিল সন্ধ্যায় শরিকল বাজারে আ’লীগের নেতাকর্মীদের ওপর হামলার অভিযোগে আ’লীগ নেতা জাহাঙ্গীর মোল্লা বাদি হয়ে বিএনপির ১৬ নেতাকর্মীর নামোল্লেখ করে আরো অজ্ঞাতনামা ২৫/৩০ জনকে আসামি করে রবিবার সকালে মারামারি ও বিস্ফোরক আইনে একটি মামলা দায়ের করেছে। মামলাটি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে ওসি জানান।
শরিকল ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক মোল্লা জানান, উপজেলার সাকোাকাঠি গ্রামের মান্না মোল্লা গংদের ব্যক্তি মালিকানা জমির ভেতর দিয়ে রাস্তা থাকায় ওই জমির মালিকরা যাতায়াতের সুবিধার্থে রাস্তা কেটে ১০০ ফুট দূরত্বে স্থানান্তর করেছে। কেটে ফেলা রাস্তার কিছু জমি আপত্তিকারীরা দাবি করে আসছে।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ