fbpx
25.6 C
Barisāl
Wednesday, April 21, 2021

বরিশালের গৌরনদীতে গ্রাম পুলিশ হুমায়নের চাদাঁবাজি, অসহায় সাধারন আম জনতা।

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার ১নং খান্জাপুর ইউনিয়নের দিনমজুর মজিবরের কাছ থেকে ব্লকমেইলে করে টাকা আদায় এর অভিযোগ পাওয়া গিয়াছে, অভিযোগ প্রদান কারি মজিবর বলেন গত ২৮তারিখে আমার বন্ধু কালকিনির থানার অন্তগত খাসের হাট থেকে আমার বন্ধু দাওয়াত খেতে আসে আমার বাড়িতে, ওই রাত আনুমানিক নয়টার দিকে স্থানীয় গ্রাম পুলিশ হুমায়ন সরদার আমার ঘরে পানি খাবো বলে ডাকাডাকি করে ও পানি নিয়ে আমি দরজা খুলে দেখি যে তার সাথে চার পাচঁ জন লোক, আমায় সে ধাক্কা দিয়ে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করে আগত মেহমানদের ঘুম থেকে উঠায়, এবং তাদের কাছে বিভিন্ন প্রশ্ন করতে থাকে এক পর্যায়ে তাদের কাছে কাবিননামার কপি চাইলে সাথে নাই বললে তাদের কে মার ধর করে, এবং পঞ্চাশ হাজার টাকা দাবি করে নাইলে পুলিশের কাছে ধরিয়ে দিবে এতে মজিবর সহ তার মা বাদা দিলে তাদের কে ও মারধর করে, এবং বিশ হাজার টাকা মা ছেলের কাছে চাদাঁ দাবি করে নাইলে ঘরে অশ্রয় দেওয়ার আপরাধে পুলিশে ধরিয়ে দিবে, এক পর্যায়ে তিনি বাধ্য হয় পুলিশের ভয়ে গ্রাম পুলিশ কে বার হাজার টাকা দেন, তার পর মজিবর বাসা থেকে তার বন্ধু ও স্ত্রী কাছে দাবি কৃত টাকা না দিতে পারায় থানায় নিয়ে যান ও পুলিশেরর কাছে সোপর্দ করে এবংতিনি নিজে বাদি হয়ে তাদের নামে মামলা করেন। গ্রাম পুলিশ সম্পর্ক স্হানীয় ইল্লা ভাঙ্গায় বাজার ব্যবসায়ীদের কাছে জানতে চাইলে, একাধিক ব্যক্তি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলেন যে গ্রাম পুলিশ হুমায়ন বিভিন্ন সময় সাধারন মানুষদের জিম্মি করে টাকা আদায় করে, এলাকায় অপরিচিত লোকজন দেখলে বিভিন্ন প্রকার হয়রানি করে নিজকে আইনের লোক বলে প্রচার করে, ও মানুষকে জিম্মি করে টাকা ইনকাম করাই আয় নাকি, কিছু দিন আগে একজন হকার ইল্লা ভাঙ্গায় ছয়টা ঘড়ি বিক্রি করছিলে তখন তার কাছে থেকে বাজারের খাজনা বাবদ পাচঁশত টাকা হাতিয়ে নেন। স্হানীয় লোকজন তাকে ভয় পায়,ও ইল্লা ভাঙ্গা থানার ওসি বলে , স্হানীয় ইউ পি সদস্য বলেন কেন পক্ষের লোকজন আমার কাছে না আশায় আমি সঠিক ভাবে কিছু বলতে পারি না, তবে টাকা আদায়ের ঘটনা বাজারে বসে আলোচেনায় শুনছি,গ্রাম পুলিশ হুমায়ন কাছে টাকার নেওয়ার বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন আমি কেনো চাদাঁ দাবি করি নাই।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ