fbpx
30.1 C
Barisāl
Saturday, October 16, 2021

গৌরনদীতে রাস্তা নির্মাণে অনিয়ম ‘হাজার মিটার রাস্তা তৈরিতে হাজারও অভিযোগ’

গৌরনদী থানার বেজগাতী গ্রামে ১৫০০ মিটার দৈর্ঘ্যের এডিবি প্রকল্পের একটি রাস্তা নির্মাণে হাজারও অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় সাবেক মহিলা ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। নি¤œ মানের ইট দিয়ে রাস্তা তৈরি করায় স্থানীয়দের মধ্যে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। জানা গেছে, গৌরনদী উপজেলার বার্থী ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের জব্বার মাষ্টারের বাড়ির সামনে থেকে মেইন রাস্তা পর্যন্ত প্রায় ১৫০০ মিটার (দেড় কিলোমিটার) প্রায় ৫৮ লাখ টাকার চুক্তিমূল্যের রাস্তা নির্মাণে দায়িত্ব পান বার্থী ইউনিয়নের ৪.৫.৬ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত আসনের সাবেক মহিলা ইউপি সদস্য রোজিনা বেগম। তবে নি¤œমানের ইট ও পরিমাণমতো বালু না দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করা হলে এর স্থায়িত্ব এক মাসও হবে না বলে অভিযোগ গ্রামবাসীর। রাস্তা নির্মাণের নামেও হরিলুট চলছে বলে তাদের অভিযোগ। এদিকে রাস্তা নির্মাণে কোনোরকম অনিয়ম হচ্ছে না বলে দাবি করেছেন অভিযুক্ত সাবেক মহিলা ইউপি সদস্য রোজিনা বেগম। সরেজমিনে গত বুধবার বেজগাতি গ্রামে গেলে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, নির্মাণের শুরু থেকেই রাস্তায় নি¤œমানের ইট ব্যবহারের চেষ্টা করলে গ্রামবাসী সম্মিলিতভাবে বাধা দেয়। সে সময় নির্মাণ সংশ্লিষ্টরা নি¤œমানের ইট ব্যবহার না করার প্রতিশ্রুতি দিলে রাস্তার কাজ শুরু হয়। কিন্তু শুরুর কয়েকদিন পর আবারও নি¤œমানের ইট আনতে দেখে গ্রামবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে এবং রাস্তা নির্মাণে বাধা দিলেও স্থানীয় রাজনৈতিক প্রভাবের বাধার মুখেও জোরপূর্বক কাজ চালিয়ে যেতে থাকে। ফলে স্থানীয়দের মধ্যে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ গিয়াস উদ্দিন হাওলাদার আক্ষেপ করে বলেন, ‘দেড় হাজার মিটার রাস্তায় অভিযোগ হাজার মানুষের।’ তিনি বলেন, ‘খুবই নি¤œমানের ইট দিয়ে রাস্তাটি নির্মাণ করা হচ্ছে। রাস্তার নিচে ভাঙা ইটও ব্যবহার করছে তারা। বালুও দেয়া হচ্ছে দায়সারাভাবে এবং ইটের মান এতই নি¤œমানের যে এক-দুই হাত উঁচু থেকে ফেললেই ভেঙে কয়েক টুকরো হয়ে যাচ্ছে। ৬নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারন সম্পাদক আঃ হক সরদার (৫০) জানান, নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করেই নি¤œমানের ইট ও পরিমাণমতো বালু না দিয়ে রাস্তাটি নির্মাণ করা হচ্ছে। তিনি আরও জানান, রাস্তার পাশ ১০ ফিট হওয়ার কথা থাকলেও মাঝে মাঝে দেয়া হচ্ছে ৮ থেকে ৬ ফিট। এ বিষয়ে তিনি সাংবাদিকদের প্রত্যক্ষ প্রমাণও দেখান। আকুব্বার হাওলাদারের পুত্র কাওসার হাওলাদার (৪৫) জানান, গ্রামবাসী শুরু থেকেই নি¤œমানের ইট ব্যবহার না করার দাবি জানিয়ে এলেও তাতে কর্ণপাত করছেন না অভিযুক্ত সাবেক মহিলা ইউপি সদস্য রোজিনা বেগম। স্থানীয়দের বাধার মধ্যেই তারা অর্ধেকেরও বেশি রাস্তার কাজ করে ফেলেছে। ইতিমধ্যেই যার বেহাল অবস্থা। এভাবে রাস্তা বানানোর চেয়ে না বানানোই ভালো। বিষয়টি স্থানীয় আ’লীগ নেতাদের সাথে আলাপ করে সংসদ সদস্যকে অবহিত করার চেষ্টা চালাচ্ছি। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সাবেক মহিলা ইউপি সদস্য রোজিনা বেগমের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি রাস্তায় কোনো অনিয়ম বা নি¤œমানের ইট ব্যবহার হচ্ছে না দাবি করে বলেন, “যেগুলো নি¤œমানের ইট এসেছিল আমরা তা ফেরত দিয়েছি। পূর্বে যে সকল ইট ব্যবহার করা হয়েছে তা ১ নম্বর তবে যে সকল ইট বর্তমানে রাস্তার পাশে রাখা হয়েছে তা পরিবর্তন করা হবে।” এ বিষয়ে আরো জানার জন্য এডিবি প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার সাথে একাধীকবার ফোনে যোগযোগ করার চেষ্টা করলেও তাকে ফোনে পাওয়া যায় নি।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ