fbpx
26.1 C
Barisāl
Monday, May 10, 2021

গৌরনদীতে ইউপি সদস্যার বাড়ি থেকে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর চাল জব্দ

বরিশালের গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডের সদস্য হেলেনা খানমের বাড়ি থেকে রবিবার সন্ধ্যায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা খাদ্যবান্ধন কর্মসূচীর চাল জব্দ করেছে। খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীতে ভূয়ানাম অর্ন্তভূক্ত করে ইউপি সদস্যা হেলেনা পারভীন নিজের লোক দিয়ে ওই চাল তুলে তা আত্মসাত করেছেন বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন। চাল জব্দ করাকে কেন্দ্র করে সরকারি দুই কর্মকর্তা লাঞ্চিত হয়েছে।
স্থানীয় লোকজন ও সংশ্লিষ্টরা জানান, গত রোববার বিকেলে গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডের সদস্য হেলেনা খানমের বাড়িতে ভ্যানযোগে চাল নিতে দেখেন এলাকাবাসি। ইউপি সদস্যের বাড়িতে একসঙ্গে ৮বস্তা চাল যেতে দেখে তাদের সন্দেহ হয়। এ সময় তারা বিষয়টি গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) খালেদা নাছরিনের কাছে সরকারি চাল আত্মসাতের অভিযোগ করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খালেদা নাসরিন অভিযোগ পাওয়ার পরে তাৎক্ষনকিভাবে উপজেলা খাদ্য পরিদর্শক অশোক কুমার চৌধুরী ও খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ট্যাগ অফিসার ও উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজার গৌড়াঙ্গ প্রসাদ গাইনকে ঘটনাস্থলে পাঠান। তারা রবিবার সন্ধ্যায় ঘটনাস্থলে পৌছে হেলেনা খানমের বসত ঘরে চাল দেখতে পান। এ সময় চাল সম্পর্কে জানতে চাইলে ইউপি সদস্যা হেলেনা খানম তাদের লোকজন নিয়ে সরকারি দুই কর্মকর্তাকে লাঞ্চিত করেন।
পূর্ব খাঞ্জাপুর গ্রামের স্থানীয়রা জানান, রবিবার বিকেলে অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তি একটি ভ্যানে ৮ বস্তা চাল নিয়ে হেলেনা মেম্বরের বাড়িতে যান। কিছু সময় পরে ভ্যানটি চাল খালাস করে ফেির আসে। পরবর্তিতে এলাকার লোকজন বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খালেদা নাছরিনের কাছে অভিযোগ করেন। গৌরনদী উপজেলা খাদ্য অধিদপ্তরের পরিদর্শক অশোক কুমার চৌধুরী বলেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)র নির্দেশক্রমে আমি ও খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ট্যাগ অফিসার গৌড়াঙ্গ প্রসাদ গাইন ঘটনাস্থলে পৌছে বাড়িতে তিন বস্তা চাল জব্দ করে খাঞ্জাপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য কামাল হাওলাদারের জিম্মায় দেই। ট্যাগ কর্মকর্তা গৌড়াঙ্গ প্রসাদ গাইন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে প্রথমে আমাদের ঘরে ঢুকতে বাধা দেয়া হয়। এনিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মেম্বরের লোকজন আমাদের লাঞ্চিত করে। স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, হেলেনা মেম্বরের ঘরে ৮বস্তায় ৪শ কেজি চাল রয়েছে জেনে আমরা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিযোগ দেই এবং সরকারি কর্মকর্তারা বাড়িতে আসছে এ খবর জানতে পেরে মেম্বর তার লোকজন নিয়ে ঘরের পিছনের দরজা দিয়ে চাল সরিয়ে এক নিকট বাড়িতে পাঠান। ঘটনাস্থলে তিন বস্তা চাল পাওয়া গেছে। গত মাসেও একইভাবে ৮বস্তা চাল মেম্বর বাড়িতে আনেন। চাল সরিয়ে নেওয়া প্রসঙ্গে গৌড়াঙ্গ প্রসাদ গাইন বলেন, আমরা পৌছার আগে চাল সরিয়ে ফেললে আমাদের কি করার আছে। তাছাড়া আমরা পুলিশ নিয়ে যাইনি যে কারনে আমরা ওইভাবে পদক্ষেপ গ্রহন করতে পারি নাই।
এ প্রসঙ্গে গৌরনদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) খালেদা নাছরিন বলেন, অভিযোগ পেয়ে দুই কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দিয়ে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। শুনেছি তারা কিছু চাল জব্দ করেছে। তবে এখনো এ সংক্রান্ত রিপোর্ট জমা দেননি। রিপোর্ট পেয়ে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ