fbpx
31.7 C
Barisāl
Tuesday, April 20, 2021

অবশেষে গৌরনদীর ৪ হজ্জ যাত্রীর কাছ থেকে আদায়কৃত ঘুষের টাকা ফেরত দিল আনসার সদস্য আলমগীর

অবশেষে গৌরনদীর ৪ হজ্জ যাত্রীর কাছ থেকে আদায়কৃত ঘুষের ৪ হাজার ৮০০ টাকা ফেরত দিলেন বরিশাল পাসপোর্ট অফিসে কর্মরত আনসার সদস্য আলমগীর হোসেন।
অভিযোগে জানা গেছে, রবিবার সকালে গৌরনদীর পিংগলাকাঠি গ্রামের হজ্বযাত্রী মোঃ হারুন অর রশিদ হাওলাদার, একই গ্রামের কালু হাওলাদার, মোঃ বাদশা হাওলাদার ও মোঃ আয়নাল গাজী বরিশাল বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসে পাসপোর্টের আবেদন জমা দিতে যান। এ সময় পাসপোর্ট অফিসে কর্মরত আনসার সদস্য আলমগীর হোসেন অফিসের কথা বলে প্রত্যেক আবেদনকারীর কাছে ১২০০টাকা করে ঘুষ দাবী করেন। ঘুষ না দিলে পাসপোর্ট হবেনা বলে তাদের জানিয়ে দেন তিনি। হজ্বযাত্রী মোঃ হারুন অর রশিদের পুত্র মোঃ শাহাদাৎ হাওলাদার অভিযোগ করেন,হজ্বযাত্রীদের কাছ থেকে ঘুষের টাকা না নেয়ার জন্য আমি আনসার আলমগীর হোসেনকে বহু অনুরোধ করেছিলাম। কিন্তু তিনি কোন অনুরোধ মানতে রাজি হননি। তিনি ৪ জন হজ্বযাত্রীর পাসপোর্টের জন্য ৪৮০০ টাকা ঘুষ আদায় করেন। গতকাল (সোমবার) সকালে মোঃ শাহাদাৎ হাওলাদার বিষয়টি নিয়ে গৌরনদী উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ জামাল উদ্দিনের কাছে অভিযোগ করেন। পরবর্তিতে বরিশাল পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালক মোঃ কামাল হোসেন খোন্দকারকে বিষয়টি মোবাইলে জানানোর পর আনসার সদস্য গতকাল দুপুরে বিকাশের মাধ্যমে ঘুষের টাকা ফেরত দিতে বাধ্য হন। আনসার সদস্য আলমগীর হোসেন ঘুষ নেয়া ও পরবর্তিতে ফেরত দেয়ার কথা স্বীকার করে এ প্রতিবেদককে জানান আমার ভুল হয়েছে ।
গৌরনদীর কয়েকজন পাসপোর্টের আবেদনকারী অভিযোগ করেন,পাসপোর্ট অফিসে আবেদন জমা দিতে গেলে আবেদন প্রতি ১২০০ টাকা ঘুষ দিতে হয়। ঘুষ না দিলে পাসপোর্ট হয়না। অফিসের কর্মকর্তারা সরাসরি ঘুষ না নিয়ে নিদৃষ্ট চ্যাণেলের মাধ্যমে ঘুষ আদায় করেন। এব্যাপারে বরিশাল বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালক মোঃ কামাল হোসেন খোন্দকারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘুষ গ্রহনের কথা অস্বীকার করেন। আনসার সদস্য আলমগীর হোসেন কর্তৃক ৪ হজ্বযাত্রীর কাছ থেকে ঘুষ গ্রহন ও ফেরত দেয়ার বিষয়টি নিয়ে তিনি বলেন অভিযোগ সত্য হলে তাকে প্রতাহার করা হবে।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ