fbpx
27.8 C
Barisāl
Sunday, September 26, 2021

বিএনপি নেতাদের বাড়িতে বাড়িতে হুমকি অব্যহত গায়েবী মামলায় জামিন নিয়ে বাড়ি ফিরে হামলার স্বীকার

গায়েবী মামলায় উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে বাড়ি ফিরে বৃহস্পতিবার রাতে হামলার শিকার হয়েছেন বরিশালের গৌরনদী উপজেলার সরিকল ইউনিয়ন ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রিপন হাওলাদার (২৫)। গৌরনদী উপজেলা বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মিদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ছাত্রলীগ যুবলীগ নেতাকর্মিদের হুমকি অব্যাহত রয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার রাতে চার নেতার বাড়িতে হানা দিয়ে হুমকি দেয়া হযেছে বলে যুবদল, ছাত্রদল নেতারা অভিযোগ করেছেন।

উপজেলার সরিকল ইউনিয়ন ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রিপন হাওলাদার অভিযোগ করে বলেন, আমাকে একাধিক গায়েবী মামলায় আসামি করা হলে পুলিশের ভয়ে আমি বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যাই। হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে গত ২৯ নভেম্বর বাড়িতে আসি। বৃহস্পতিবার রাতে যুবলীগ কর্মি হারুন আকন ও সজীব বিশ্বাসসহ ১০/১২ জন নেতাকর্মি বাড়িতে হামলা চালিয়ে আমাকে পিটিয়ে জখম করে। এ সময় আমাকে রক্ষায় স্ত্রী এ্যানি খানম এগিয়ে এলে তাকেও মারধর করা হয়। গুরুতরভাবে জখম অবস্থায় আমাকে হাসপাতালে নেয়ার চেষ্টা করলে হাসপাতালে যেতে বাধা দেয়া হয়। এ অভিযোগ অস্বীকার করে যুবলীগ কর্মি হারুন আকন বলেন, আমার নামে মিথ্যাচার চালাচ্ছে। হামলা সম্পর্কে আমি কিছুই জানি না।
বরিশাল উত্তর জেলা যুবদলের সাধারন সম্পাদক মো. মাহফুজ মোল্লা (৩৫) অভিযোগ করে বলেন, আমি প্রায় এক বছর ধরে হামলা মামলায় এলাকাছাড়া। গৌরনদী উপজেলার দক্ষিণ পালরদী বাড়িতে আমার মা মনোয়ারা বেগম স্ত্রী ও সন্তান বসবাস করেন। শুক্রবার রাত দেড়টার দিকে ১৫/২০টি মটরসাইকেলযোগে ৪০/৫০ ছাত্রলীগ যুবলীগ নেতাকর্মিরা বাড়িতে গিয়ে ঘরের দরজা, জানালা ও বেড়া পিটাপিটি করে দরজা খুলতে বললে মা মনোয়ারা বেগম দরজা খুলে দেন। এ সময় হামলাকারীরা আমাকে খুজে না পেয়ে অকথ্য ভাষায় গালিাগালাজ করে। চলে যাওয়ার সময় মা মনোয়ারা বেগমকে বলে যদি ভাল থাকতে চাও তাহলে ছেলে যেন ৩০ ডিসেম্বরের আগে বাড়িতে না আসে। আসলে তাকে মেরে ফেলাা হবে। একই অভিযোগ করে উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও সরকারি গৌরনদী কলেজ ছাত্রসংসদের সাবেক ভিপি মো. জাকির হোসেন রাজা বলেন, রাত সোয়া ১টার দিকে মুখে কালো কাপর বাঁধা ২০/২৫জন সন্ত্রাসী বাড়িতে গিয়ে ঘরের দরজা জাানালা পিটাপিটি করে। ঘরের সামনে বড় রামদা দিয়ে মাটিতে কোপায় আর বলে শালায় বাড়ি আসলে এভাবে কুপিয়ে ঝাঝড়া করে দিবো। জাকিরের স্ত্রী কহিনুর (৩৫) অভিযোগ করে বলেন, সন্ত্রাসীরা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে বাড়িতে না আসতে হুমকি দিয়ে চলে যান। উপজেলা ছাত্রদলের আহবায়ক কমিটির সদস্য মো. জসিম শরীফ অভিযোগ করে বলেন, রাত পোনে ২টার দিকে একদল সন্ত্রাসী বাড়িতে ২৫/৩০ জন সন্ত্রাসী হানা দিয়ে ঘরের দৌরের নিচ দিয়ে বড় রামদা ও অস্ত্র ঢুকিয়ে পরিবারের লোকজনকে ভয়ভীতি দেখান। এ কপর্যায়ে নির্বাচনের আগে বাড়ি আসতে নিষেধ করে হুমকি দিয়ে চলে যায়। একই অভিযোগ করেন, উপজেলা যুবদলের সদস্য মো. বজলুর রহমান।
এ প্রসঙ্গে গৌরনদী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জোবায়েরুল ইসলাম সান্টু ভূইয়া বলেন, এ ঘটনার সঙ্গে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কোন নেতাকর্মি জড়িত নাই। রাজনৈতিক সুবিধা নিতে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার চালাচ্ছে বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মিরা। এ প্রসঙ্গে গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম ছরোয়ার বলেন, এ ধরনের কোন ঘটনা আমার জানা নেই, কেউ কোন অভিযোগ করেনি।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ