fbpx
22.3 C
Barisāl
Wednesday, January 26, 2022

সংবাদ প্রকাশের পর পুলিশ বাদি হয়ে সৎ মায়ের বিরুদ্ধে মামলা নিতে পুলিশ সুপারের নির্দেশ

নিউজ ডেস্ক: জাতীয় ও স্থানীয় বিভিন্ন সংবাদপত্রে “সৎ মায়ের কান্ড” শিরোনামে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশের পর টনগ নড়েছে পুলিশ প্রশাসনের। প্রকাশিত সংবাদটি জেলা পুলিশ সুপার মোঃ সাইফুল ইসলাম বিপিএম এর দৃষ্টিগোচর হওয়ার পর তিনি নির্যাতনকারী সৎ মা সাথী বেগমের বিরুদ্ধে পুলিশকে বাদি হয়ে মামলা গ্রহণ করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।
গৌরনদী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ আফজাল হোসেন জানান, পুলিশ সুপারের নির্দেশ পেয়ে তিনি রবিবার সকালে ঘটনাস্থল টরকীর নবীনগর এলাকায় গেলে অভিযুক্ত সাথী বেগমসহ পরিবারের সবাই আত্মগোপন করে। এমনটি আট বছরের নির্যাতিত শিশু সাইমুনকেও খুঁেজ পাওয়া যায়নি। তিনি আরও জানান, নির্যাতনকারী সাথী বেগমকে আটকসহ নির্যাতিত শিশু সাইমুনকে উদ্ধারের জন্য পুলিশের অভিযান চলছে। পাশাপাশি এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে মামলা দায়েরেরও প্রস্তুতি নিয়েছেন।
উল্লেখ্য, ওই গ্রামের হালিম হাওলাদারের প্রথম স্ত্রী ছয়বছর পূর্বে মারা যাওয়ার পর সাথী বেগমকে দ্বিতীয় স্ত্রী হিসেবে বিয়ে করেন হালিম। সৎ মা সাথীর জ্বালাতনে অতিষ্ঠ হয়ে হালিম তার প্রথম স্ত্রীর পুত্র সাইমুনকে পাশ্ববর্তী কসবা শরীফবাড়ি নূরানী মাদ্রাসার ভর্তি করে সেখানকার বোর্ডিংয়ে রাখেন। শুক্রবার বিকেলে শিশু সাইমুন বাড়িতে এসে ওইদিন রাতে বাড়িতে থাকায় তার সৎ মা তাকে গালিগালাজের একপর্যায়ে অমানুষিক নির্যাতন করে। এতে তার একটি কানের অর্ধেক ছিড়ে ঝুলে যায়।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ