fbpx
31 C
Barisāl
Thursday, September 23, 2021

মুশফিকের অভিমান ভাঙাবে কে?

একে একে বিভিন্ন দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন সিনিয়র ক্রিকেটাররা। গুঞ্জন আছে, কোচের নানারকম সিদ্ধান্ত মনঃপুত না হওয়ায়, দীর্ঘদিন অভিমান পুষে রেখেছেন তারা। সবশেষ মুশফিকুর রহিমের উইকেটকিপিং ছাড়ার সিদ্ধান্তের পর যে গুঞ্জন আরও জোরালো হয়েছে। এমন ঘটনাকে দলের জন্য অশুভ লক্ষণ বলছেন সাবেকরা। পাশাপাশি বাংলাদেশ দলের স্বার্থে ক্রিকেটারদেরও পেশাদার আচরণের আহ্বান জানিয়েছেন তারা।টাইগার ক্রিকেটের একনিষ্ঠ ভক্ত যারা, তাদের মন খারাপ হওয়াই স্বাভাবিক। ধীরে ধীরে শেষ হয়ে আসছে পঞ্চপাণ্ডব অধ্যায়। শূন্যতা গ্রাস করছে বাংলার ডাগ আউটটাকে। মাশরাফী নেই, টেস্টকে বিদায় বলে ফেলেছেন মাহমুদউল্লাহ। অজানা কারণে দেড় বছর টি-টোয়েন্টি না খেলা তামিম সরে দাঁড়িয়েছেন বিশ্বকাপ থেকে। আর এবার মুশফিকের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে উইকেট কিপিং ছাড়ার সিদ্ধান্ত।

টেস্টের কিপিং আগেই ছেড়েছেন। এবার নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চলমান সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচ সোহান আর পরের দুই ম্যাচ তিনি কিপিং করবেন, রাসেল ডমিঙ্গোর এমন ঘোষণায় চরম মনঃক্ষুণ্ণ হন মুশফিক। টি-টোয়েন্টির কিপিং গ্লাভস জোড়া একেবারে খুলে রাখার কথা টিম ম্যানেজমেন্টকে জানিয়েও দিয়েছেন মুশি।

সমালোচনা থাকলেও কিপিং গ্লাভস হাতে বাংলাদেশের হয়ে সাফল্য কম নয় তার। টি-টোয়েন্টিতে ডিসমিসালের হিসেবে চতুর্থ স্থানে আছেন। ৮৯ ম্যাচে ৬১ ডিসমিসাল। যার মধ্যে উইকেটের পেছনে ক্যাচ নিয়েছেন ৩২টি আর স্টাম্পিং ২৯টি। এই তালিকায় মুশির ওপরে আছেন ধোনি, রামদিন আর ডি কক।

তিন ফরম্যাটে ডিসমিসালের হিসেবে ১৫তম অবস্থানে মুশফিক। সব মিলিয়ে ৩৯১ ম্যাচে উইকেটরক্ষক হিসেবে ৩১৭ ক্যাচ আর ৯০ স্টাম্পিং। মোট ডিসমিসাল ৪০৭টি। অভিজ্ঞ এই উইকেটরক্ষককে সরিয়ে অন্য কাউকে দায়িত্ব দেওয়ার প্রক্রিয়া আরও সুনিপুণ হওয়া উচিত ছিল, মত বিশ্লেষকদের। বিশ্বকাপের আগে জল আরও ঘোলা না করার অনুরোধ জানান তারা।সাবেক অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক খালেদ মাসুদ পাইলট বলেন, ‌’মুশফিক কঠিন একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে কিপিং করবে না টি-টোয়েন্টিতে। এটা টিমের জন্য অবশ্যই খুব একটা ভালো লক্ষণ না। তবে মান-অভিমান আরেকটু কমিয়ে দিয়ে বাংলাদেশের টিমের কথা চিন্তা করলে বেশি ভালো হয়। এখানে তো কাউকেই ছোট করে দেখার বিষয় নেই।‌’

ওয়ানডাউনে খেলে স্মরণীয় এক বিশ্বকাপ কাটানো সাকিবকে চার নম্বরে ব্যাটিং করানোর অদ্ভুত আইডিয়াটাও এসেছিল ডমিঙ্গোর মাথা থেকে। যদিও হুট করে তিন নম্বরে শান্তকে খেলানোর সে পরিকল্পনা চরমভাবে ব্যর্থ হওয়ায় আবারও পুরনো জায়গাটা ফেরত পান সাকিব। তাই প্রশ্ন থেকে যায়, পুরনো উৎসাহ কি ফিরে পাবেন মুশফিক?

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ