fbpx
23.7 C
Barisāl
Thursday, October 21, 2021

গৌরনদীতে নারী ইউএনও খালেদা নাসরিনের যোগদান

গৌরনদীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে গতকাল মঙ্গলবার খালেদা নাসরিন যোগদান করেছেন। এর পূর্বে তিনি শেরপুর জেলার শ্রীবদী উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে ছিলেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুমা আক্তার গৌরনদী থেকে উজিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে যোদানের পর এ পদটি শুন্য হয়। নতুন যোগদানকারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার খালেদা নাসরিন সকলের সহযোগীতা কামনা করেছেন। গতকাল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দা মনিরুন নাহার মেরী, গৌরনদী উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ গিয়াস উদ্দিন মিয়াসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা ফুলের শুভেচ্ছা জানান। এ ছাড়া আজ বুধবার সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় মিলিত হবেন।
ছাত্রলীগ নেতার বিস্ফোরক মামলার সন্দেহ ভাজন আসামি
গৌরনদীর জামায়াতের ২ নেতা গ্রেফতার
গৌরনদী প্রতিনিধি
বিস্ফোরক ও মারামারির ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে সোমবার রাতে বরিশালের গৌরনদী উপজেলার উত্তর বিজয়পুর এলাকা থেকে উপজেলা জামায়াতের সদস্য মোস্তফা আনোয়ারুল ইসলাম (৬২) ও টরকী বন্দর থেকে পৌর জামায়াতের সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লা (৫২)কে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। উপজেলার টরকী বন্দর ট্রলারঘাটে চাঁদাবাজিতে বাধা দেয়ায় ব্যবসায়ী আলাউদ্দিন খানসহ ২ জনকে মারধর করার ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলায় সোমবার রাতে সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে জামায়াতের ওই ২ নেতাকে গ্রেফতার করা হয়।
এ ব্যাপারে গৌরনদী থানার ওসি আফজাল হোসেন জানান, গত ৩ ফ্রেরুয়ারি পৌর কাউন্সিল খায়রুল খানের ছোট ভাই বড় কসবা গ্রামের ইমরাত খান বাদি হয়ে বিস্ফোরকদ্রব্য আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে মোস্তফা আনোয়ারুল ইসলাম ও জাহাঙ্গীর হোসেন মোল্লাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ১ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় সাহানাজ সরদার ও তার পুত্র ইউসুফ সরদারকে ট্রলার থেকে চাঁদা উত্তোলণে বাধা দেন ব্যবসায়ী আলাউদ্দিন। এতে পৌর কাউন্সিলর খায়রুল খান ক্ষুব্ধ হয়ে ১০/১২ জনে মিলে আলাউদ্দিনকে মারধর করে রক্তাক্ত জখম ও ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানের মালামাল তছনছ করে। খবর পেয়ে গৌরনদী থানার ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শনকালে পুলিশের উপস্থিতিতে কাউন্সিলর খায়রুল দ্বিতীয় দফা আলাউদ্দিনের ফুফাতো ভাই আসাদুল্লাহ্’র উপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় আলাউদ্দিন বাদী হয়ে খায়রুল খানসহ ১১ জনকে আসামি করে ২ ফেব্রুয়ারি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। গত ৩ ফেব্রুয়ারি খায়রুল খানের পক্ষ হয়ে তার ভাই উপজেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ইমরাত খান বাদি হয়ে যুবদল নেতা মনির হাওলাদারসহ ৯ জনের নামোল্লেখসহ ৩৪ জনকে আসামি করে বিস্ফোরক আইনে পাল্টামামলা দায়ের করেন।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ