fbpx
27.9 C
Barisāl
Wednesday, December 1, 2021

টরকী এলাকায় ছাত্রীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা \ যুবক গ্রেফতার

বরিশালের সরকারি গৌরনদী কলেজের এক ছাত্রীকে গৌরনদী উপজেলার টরকী এলাকায় একটি বাসায় জোরপূর্বক ধর্ষনের চেষ্টা চালায় এক বখাটে যুবক। কলেজ ছাত্রীর বাঁধার মুখে ধর্ষনের ব্যার্থ হয়ে ছাত্রীকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওযা গেছে। গুরুতরভাবে আহত কলেজ ছাত্রীকে প্রথমে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্র কমপ্লেক্সে ও অবস্থার অবনতি ঘটলে বরিশাল শেরে-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় রোববার কলেজ ছাত্রীর মা বাদি হয়ে গৌরনদী মডেল একটি মামলা দায়ের করেছে। পুলিশ আসামি শান্ত গুপ্তকে (২৪) গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠিয়েছে। কলেজ ছাত্রীর অভিযোগ, স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ জানান, আগৈলঝাড়া উপজেলার কৃষক পরিবারের কন্যা ও সরকারি গৌরনদী কলেজের ডিগ্রী প্রথম বর্ষের ছাত্রীর (২১) সাথে একই উপজেলার ফেনাবাড়ি গ্রামের মৃত দেবেন বালার পুত্র শান্ত গুপ্ত(২৪)র গত দুই মাস আগে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে পরিচয় হয়। পরিচয়ের সুবাদে শান্ত কলেজ ছাত্রীর মোবাইল নম্বর নিয়ে প্রায়ই ফোন করে।

গত শনিবার বিকেলে শান্ত গুপ্ত কলেজে ছাত্রীর সঙ্গে করতে চেয়ে অনুরোধ জানান। এক পর্যায়ে কলেজ ছাত্রী তার সঙ্গে দেখা করতে রাজি হলে শান্ত কলেজ ছাত্রীকে টরকী বন্দরের একটি বাসার ঠিকানা দিয়ে সেখানে আসতে বলে। কলেজ ছাত্রী বিকেলে টরকীতে পৌছলে শান্ত তাকে নিয়ে টরকী বন্দরে ঘোরাঘুরি করে সন্ধ্যার দিকে টরকী বন্দর হাইস্কুল রোডের শান্তর আত্মীয় শিমু ঢালীর ভাড়াটিয়া বাসায় নিয়ে যায়। ওই বাসায় শিমু ঢালী একাকী বসবাস করত। বাসার মালিক শিমু ঢালী বলেন, কলেজ ছাত্রীকে শান্ত তার বোন বলে পরিচয় দিয়ে আমার বাসায় নিয়ে আসে। আমি তাদের বসিয়ে রেখে নাস্তা আনার জন্য পাশ্ববর্তি বাজারে যাই। এসে বিষয়টি জানতে পারি। কলেজ ছাত্রী জানান, ফেইসবুকে পরিচয় হওয়ার পরে সে প্রায়ই ফোন করত। শনিবার তার সাথে দেখার জন্য বার বার অনুরোধ করলে আমি শান্তর সঙ্গে দেখা করতে টরকীতে আসেন। শান্ত তার আত্মীয়র বাসায় একাকি পেয়ে জোরপূর্বক তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। ছাত্রী অভিযোগ করে বলেন, এ সময় আমি বাধা দিলে আমাকে মারধর করে কুপিয়ে জখম করে। ডাকচিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে শান্ত পালিয়ে য়াওয়ার চেষ্টা করে।

স্থানীয় একাধিক ব্যক্তি জানান, মেয়ের কণ্ঠে ডাকচিৎকার শুনে তারা এগিয়ে এসে বিষয়টি শুনে শান্তকে গনধোলাই দিয়ে পুলিশের কাছে সোর্পদ করা হয়। পরবর্তীতে কলেজ ছাত্রীকে উদ্ধার করে প্রথমে গৌরনদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ওই রাতে বরিশাল শেরে-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজে হাসপাতালে প্রেরন পাঠান। গৌরনদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম সরোয়ার বলেন, এ ঘটনায় রোববার সকালে কলেজ ছাত্রীর মা বাদি হয়ে গৌরনদী মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ অভিযুক্ত শান্ত গুপ্তকে মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে ওই দিন বরিশাল চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করলে আদালত তাকে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে প্রেরন করেছেন।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ