fbpx
21.2 C
Barisāl
Tuesday, December 7, 2021

ধর্ষণের লোকলজ্জায় কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে আত্মহননকারী স্কুল ছাত্রীর দাফন সম্পন্ন

ধর্ষণের শিকার হয়ে লোকলজ্জায় গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে আত্মহননকারী স্কুল ছাত্রী সোনিয়া আক্তারের (১৩) দাফন সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার মধ্য চরাদি গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
সূত্রমতে, গত ২৭ ডিসেম্বর সকালে ধর্ষণের শিকার হওয়ার পরে নিজ ঘরে গিয়ে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে আত্মহননের চেষ্টা করে স্কুল ছাত্রী সোনিয়া। পরে মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার (৩১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় সোনিয়া মারা যায়। ময়নাতদন্ত শেষে সোমবার (১ জানুয়ারি) রাতে স্বজনরা সোনিয়ার লাশ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসলে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।
সোনিয়া মধ্য চরাদি গ্রামের দুলাল খানের ছোট কন্যা ও বরিশাল শেরে বাংলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিলো। মৃত সোনিয়ার বরাত দিয়ে তার বড়বোন সুরাইয়া আক্তার জানান, তার বাবা দিনমজুরের কাজ করেন। ঘটনার দিক সকালে তাদের বাড়িতে কেউ ছিলনা। এ সময় সোনিয়াকে বাড়িতে একা পেয়ে প্রতিবেশী পান্না খানের পুত্র আসাদ খান তাকে ডিম ভেজে দেয়ার জন্য বলে। সোনিয়া ডিম পাঠিয়ে দিতে বললে আসাদ ঘরে আসতে বলেন। ঘরে ঢোকার পরে আসাদ তাকে জোড়পূর্বক ধর্ষণ করে। এসময় সোনিয়ার কান্নাশুনে চাঁদনী নামের অপর এক ছাত্রী ঘরের পাশে গেলে আসাদ ঘরের দরজা খুলে তাকে তাড়িয়ে দেয়। ওইসময় দরজা খোলা পেয়ে সোনিয়া পালিয়ে নিজ ঘরে এসে দরজা বন্ধ করে গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।
বাকেরগঞ্জ থানার ওসি মোঃ মাসুদুজ্জামান বলেন, স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। ওসি আরও জানান, ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা আত্মগোপন করেছে। তার পরেও তাদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান চলছে।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ