fbpx
25.2 C
Barisāl
Friday, April 16, 2021

মাদক মামলার আসামী গ্রেফতার করতে গিয়ে আগৈলঝাড়ায় পুলিশের এএসআইসহ দুই জনকে কুপিয়ে আহত।

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় মাদক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী গ্রেফতার করতে গিয়ে পুলিশের এএসআইসহ দুই জনকে কুপিয়ে আহত করা হয়েছে। থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে তাদের উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের পর একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার গৈলা ইউনিয়নের বরিয়ালী গ্রামের নান্নু ভূইয়ার ছেলে সুজন ভুইয়ার বিরুদ্ধে আদালত থেকে মাদক মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করে আগৈলঝাড়া থানায় পাঠায়। আদালতের গ্রেফতারী পরোয়ানা পর মঙ্গলবার রাতে মাদক মামলার আসামী সুজন ভুইয়াকে গ্রেফতার করতে বরিয়ালী গ্রামে যায় এএসআই জাহিদুল ইসলাম ও সিপাহী সোহাগ হোসাইন। ভুইয়া বাড়ির সামনে রাস্তা বসে এএসআই জাহিদুল ইসলাম সুজনকে এক হাত দিয়ে ধরে ফেলে। এসময় অন্য হাত দিয়ে সুজন পকেট থেকে চাকু বের করে এএসআই জাহিদুল ইসলামকে কুপিয়ে আহত করে। সুজন পুলিশে ধরেছে বলে চিৎকার দিলে তার বাড়ির লোকজন এসে এএসআই জাহিদুল ইসলাম ও সিপাহী সোহাগ হোসাইনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে সুজনকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। সুজনের বিরুদ্ধে আগৈলঝাড়া ও গৌরনদী থানায় মাদকসহ বিভিন্ন ধরনের ৫টি মামলা রয়েছে বলে পুলিশ জানায়। এ সংবাদ থানায় জানার পর অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে এএসআই জাহিদুলসহ দুই জনকে উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতাল ভর্তি করে। এ ঘটনায় এএসআই জাহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতেই থানায় মামলা দায়ের করেন, যার নং-৯(২০-২-২০১৮)। ওই রাতেই মাদক ব্যবসায়ী সুজনের মা শাহানুর বেগমকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতকে গতকাল বুধবার সকালে বরিশাল আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ