fbpx
31.3 C
Barisāl
Tuesday, June 22, 2021

আগৈলঝাড়ায় সওজ’র জায়গা দখল করে কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে বালু ভরাট।

বরিশাল সড়ক জনপথ বিভাগের কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে আগৈলঝাড়ায়-পয়সারহাট আ লিক মহাসড়কের আগৈলঝাড়ার পয়সারহাট এলাকায় সওজের জায়গা অবৈধভাবে দখল করে বালু ভরাট করছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। সওজ’র নির্বাহী প্রকৌশলী বলেছেন বালু ভরাট করলে তাতে কোন সমস্যা নেই !
স্থানীয়রা অভিযোগে জানান, উপজেলার বাকাল ইউনিয়নের পূর্ব পয়সা মৌজায় পূর্ব পয়সা বেইলী ব্রীজ এলাকায় মহাসড়কের পার্শ্বে দোকান নির্মানের জন্য অবৈধভাবে সওজ’র জায়গা দখল করে বালু ভরাট করছে চাঁদত্রিশিরা গ্রামের হাজী মহব্বত আলী মোল্লার ছেলে পয়সার হাট বন্দরের ঠিকাদার মালামাল ব্যবসায়ী অশ্রুল মোল্লা ও উজিরপুর উপজেলার সাতলা গ্রামের ছত্তার হাওলাদারের দুবাই প্রবাসী ছেলে আব্দুর রহিম হাওলাদার। রহিম বিদেশ থাকায় তার পক্ষে বালু ভরাটের নেতৃত্ব দিচ্ছে তার স্থানীয় প্রভাবশালী শ্যালক। স্থানীয়দের বাধা উপেক্ষা করে সম্প্রতি এই দুই প্রভাবশালী দখলদার স্থানীয় কতিপয় লোকজনসহ সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা অবৈধভাবে দখল করে বালু ভরাট করে আসছে। দখলদাররা রাজনৈতিকভাবে দুই মেরুর লোক হলেও সওজ এর অধিগ্রহনকৃত জায়গা দখলে তারা একট্রা। এ ঘটনায় এলাকার সাধারণ মানুষ ও রাজনৈতিক কর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। বালু ভরাটকারী দখলদার অশ্রুল মোল্লা ফোনে সাংবাদিকদের জানান, তিনি ৭-৮শতাংশ জায়গা কিনেছেন। তার সাথে আব্দুর রহিমসহ অন্যরাও জায়গা কিনেছেন। তার সাথে অন্যরাও বালু ভরাট করছেন। বালু ভরাটের পরে তাদের জায়গা মাপ দিয়ে যে যতটুকু জায়গার মালিক সেই অনুযায়ী তারা বালু ভরাটের টাকা পরিশোধ করবেন। বালু ভরাটের সত্যতা স্বীকার করে তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, সরকারী জায়গা ভরাট করা ভাল নয় কি? এর পরই নামাজের কথা বলে তিনি ফোনের লাইন কেটে দেন। এ ব্যাপারে বরিশাল সড়ক জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী খোন্দকার গোলাম মোস্তফা সাংবাদিকদের বলেন, তিনি বালু ভরাটের ব্যাপারে শুক্রবার জেনেছেন। কোন ব্যবস্থা নিয়েছেন কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, বালু ভরাট করলে তাতে কোন সমস্যা নেই। ভরাটকৃত জায়গায় যদি কেউ দোকানপাট তোলে তাহলে তাকে জানালে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ