fbpx
26.7 C
Barisāl
Wednesday, January 26, 2022

আলৈঝাড়ায় গ্রুপিংয়ের কারনে পালিত হয়নি বিএনপি’র ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী।

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় বিএনপি’র গ্রুপিং’র কারনে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত হয়নি। এতে তৃনমুল বিএনপির নেতা-কর্মীদের মাঝে চরম ক্ষোভ দেয়া দিয়েছে। উপজেলা পর্যায় নেতারা জানান পুলিশ প্রশাসনের হয়রানির কারনে গতকাল শনিবার দলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান করা যাচ্ছে না। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বিএনপি নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকে দুই গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পরে। বরিশাল-১ আসনের চারদলীয় ঐক্যজোট মনোনীত প্রার্থী ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপি নেতা ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সোবহান। নির্বাচনের পরে তার সমর্থিত আঃ লতিফ মোল্লাকে আহবায়ক করে আগৈলঝাড়া উপজেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটি গঠনের পর কেন্দ্রীয় অপর নেতা আকন কুদ্দুসুর রহমান সমর্থিত নেতাকর্মীরা কোণঠাসা হয়ে পরে। পরবর্তীতে ২০০৯ সালের ২৭ নভেম্বর গৈলায় লতিফ মোল্লার বাড়ি কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়। কাউন্সিলে মো.লতিফ মোল্লা সভাপতি ও আফজাল শিকদারকে সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়।

এর পর থেকে বিএনপির রাজনীতিতে গ্রুপিং এর সৃষ্টি হয় এবং দুই ধারায় বিভক্ত হয়। বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আকন কুদ্দুসুর রহমান সমর্থিত আগৈলঝাড়া উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবুল হোসেন লাল্টুকে আহ্বায়ক করে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছিল। এ কমিটি প্রত্যখান করেছিলেন ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সোবহান সমর্থিত দলীয় নেতা কর্মীরা। বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা আকন কুদ্দুসুর রহমান সমর্থিত এস.এম আফজাল হোসেন সিকদারকে সভাপতি ও আবুল হোসেন লাল্টুকে সাধারণ সম্পাদক করে ৬১ সদস্য বিশিষ্ট আগৈলঝাড়া উপজেলা বিএনপি আরেকটি কমিটি গঠন করে ২০১১ সালের ১২ সেপ্টেম্বর জেলা উত্তর বিএনপি’র সভাপতি মেজবা উদ্দিন ফরহাদ এমপি ও সাধারণ সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান অনুমোদন করেন। ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সোবহান কেন্দ্রীয় বিএনপির কমিটির কাছে অভিযোগ দেওয়ায় কেন্দ্রীয় বিএনপি বরিশাল জেলা উত্তর সভাপতি ও সম্পাদককে চিঠি দিয়ে নতুন কমিটির কার্যক্রম স্থগিতের নির্দেশ দেয়। গ্রুপিং’র কারনে উপজেলা বিএনপি কোন দলীয় কর্মসূচী ও দলের ৪০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কোন কর্মসূচী গতকাল শনিবার আগৈলঝাড়ায় পালিত হয়নি। এমনকি কেন্দ্রীয় ঘোষিত কোন কর্মসূচীই পালিত হয় না। এ ব্যাপারে উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন সিকদার সাংবাদিকদের জানান, নিরাপত্তার কারনে আগৈলঝাড়ায় দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কোন কর্মসূচী পালন করা যাচ্ছে না। এমনকি হয়রানির ভয়ে কোন তৃণমুল পর্যায় কর্মীরা কর্মসূচীতে অংশ গ্রহণ করতে চাচ্ছে না। বিএনপি কর্মীদের হয়রানীর অভিযোগ অস্বীকার করে থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আ. রাজ্জাক মোল্লা বলেন, তাদের দলের আভ্যন্তরীণ কোন্দলে এখানে কোন কর্মসূচি পালন হয় না। তিনি আরও বলেন, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় কোন অরাজকতা না করে যে কেউ তাদের কর্মসূচী পালন করতে পারে। তবে বিএনপি’র পক্ষ থেকে থানাকে কোন কর্মসূচীর কথা জানানো হয়নি। তারা কর্মসূচী পালন করতে চাইলে অবশ্যই শান্তিপূর্নভাবে তা পালন করতে পারবে।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ