fbpx
31.3 C
Barisāl
Tuesday, June 22, 2021

উজিরপুরে বিএনপি-আ’লীগ সংঘর্ষ, আহত ১৮ বিএনপির ৭৭ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

বরিশাল-২ আসনের (উজিরপুর-বানারীপাড়া) নির্বাচনী প্রচারনাকে কেন্দ্র করে ধানের শীষ ও নৌকার সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়েছে। মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার পরে নির্বাচনী আসনটির বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের উজিরপুর উপজেলার বামরাইল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে উভয় দলের নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুরসহ উভয় পক্ষের অন্তত ১৮ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে গুরুত্বর আহত বামরাইল ইউনিয়ন ২ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি মো. চুন্নু রাঢ়ী, ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ন আহব্বায়ক মো. শাওন বালী ও সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মুজাহিদুল ইসলাম উজিরপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় বিএনপির ৪৭ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামাসহ ৭৭ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বুধবার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুরে বামরাইল ইউনিয়ন ২ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি মো. চুন্নু রাঢ়ী (৫৫) বাদি হয়ে উজিরপুর মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন। পুলিশ মামলার এজাহারভূক্ত মো. আলী ইসলাম ও আবুল হোসেন নামে দুই বিএনপি কর্মীকে গ্রেপ্তার করে গতকাল বুধবার আদালতের মাধ্যমে বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী, স্থানীয় বাজারের ব্যবসায়ী ও পুলিশ জানান, এ আসনের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. শাহ আলম তালুকদার এবং ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী সরদার সরফুদ্দিন আহম্মেদের কতিপয় সমর্থকরা মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে উজিরপুর উপজেলার বামরাইল বাজারে নিজ নিজ দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান করছিল। এ সময় উভয় দলের সমর্থকদের উস্কানীমূলক শ্লোগানকে কেন্দ্র করে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ভাঙচুর হয় উভয় পক্ষের নির্বাচনী কার্যালয়। আহত বামরাইল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা মো. চুন্নু বেপারী, যুবলীগ নেতা মো. শাওন বালী, স্বেচ্ছসেবক লীগের নেতা মো. মুজাহিদুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, তারাসহ ১০/১২ জন নেতাকর্মি দলীয় নির্বাচনী কার্যালয়ের সামনে দাড়িয়ে কথা বলছিলেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে বামরাইল ইউনিয়ন শ্রমিকদলের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো. আলী ইসলামের (৪০) নেতৃত্বে প্রায় শতাধিক বিএনপির নেতাকর্মি একটি মিছিল নিয়ে এসে অতর্কিতভাবে তাদের নির্বাচনী কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে আসবাবপত্র ভাঙচুর করে।

এ সময় তারা বাধা প্রদান করলে তাদেরসহ কমপক্ষে ১০ নেতাকর্মীকে পিটিয়ে জখম করে। বামরাইল ইউনিয়ন বিএনপির একাধিক নেতাকর্মীরা আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ তুলে বলেন, একই সময়ে ওই ইউনিয়ন বিএনপির ২০/২৫ জন নেতাকর্মি বামরাইল বাজারের দলীয় কার্যালয়ে অবস্থান করছিলেন। এ সময় স্থানীয় কতিপয় ৫০/৬০ জন নৌকার সমর্থকরা অতর্কিতভাবে তাদের উপর হামলা চালায়। এতে ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো. জুয়েল, শ্রমিকদলের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো. আলী ইসলাম, ৩নং ওয়ার্ড বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাহেব আলী, ইউনিয়ন ছাত্রদলের সদস্য এনামুল হক, রবিউল সরদারসহ ৮ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। কয়েকজনকে উজিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। উজিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিশির কুমার পাল বলেন, মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন মামলার এজাহারভুক্ত ২ জনকে আটক করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া হামলা ও সংঘর্ষ এড়াতে পৌর নগরীর কয়েকটি স্থানে পুলিশি নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ