fbpx
31.6 C
Barisāl
Monday, June 21, 2021

উজিরপুরে আ’লীগের নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর, বিএনপির ৫১ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

বরিশাল-২ আসনের (উজিরপুর-বানারীপাড়া) উজিরপুরে আওয়ামী লীগ ও নৌকার নির্বাচনী একটি ওয়ার্ড কার্যালয়ে হামলা-ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে গুরুত্বর আহত হয়ে রাজীব ও শাকিল নামে স্থানীয় দুই ছাত্রলীগকর্মী উজিরপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। শনিবার (২২ ডিসেম্বর) আসনটির উজিরপুর উপজেলার শোলক ইউনিয়নের ধামুড়া টেম্পুস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তবে হামলাকারীরা সকলে ধানের শীষের সমর্থক ছিলো দাবী করে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ওই এলাকায় বিএনপির একটি নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করেছে।

এ ঘটনায় বিএনপির ২৬ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামাসহ ৭৭ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শনিবার (২২ ডিসেম্বর) রাতেই শোলক ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও আ’লীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম সরদার (৪৮) বাদি হয়ে উজিরপুর মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন। শোলক ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও আ’লীগ নেতা মো. সিরাজুল ইসলাম সরদার অভিযোগ করে জানান, শনিবার রাতে কয়েকজন নেতাকর্মীরা ধামুড়া এলাকার ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের অফিসে বসেছিলেন।

এ সময় ছাত্রদল নেতা জুয়েলের নেতৃত্বে ২০/২৫ জনের একদল বিএনপির নেতারা অতর্কিতভাবে ওই অফিসে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। এতে দুই ছাত্রলীগ নেতাসহ কমপক্ষে ৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। তিনি আরও জানান, হামলাকারীরা তান্ডব চালিয়ে অফিসে থাকা অর্ধশতাধিক চেয়ার, একটি টেবিল ও একটি টেলিভিশন ভাঙচুর করে। এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে রাতেই হামলাকারী বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। শোলক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মো. কুদ্দুস ফকির জানান, ঘটনার পর রাতেই তাৎক্ষনিকভাবে তারা বিএনপির হামলা ও ভাঙচুরের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

তবে বিএনপির অফিস ভাঙচুরের বিষয়ে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি। এদিকে শোলক ইউনিয়ন বিএনপির সাধারন সম্পাদক মনির হোসেন জমাদ্দারসহ একাধিক নেতাকর্মীরা অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, শনিবার রাতে ক্ষমতাসীনদলের লোকজন শোলক ইউনিয়ন বিএনপির প্রধান নির্বাচনী অফিসে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে। তাছাড়া বর্তমানে হামলা-মামলায় এলাকার এমন পরিস্থিতি যে বিএনপির নেতাকর্মীরা ঘর থেকেই বের হতে পারছে না। তাহলে কিভাবে আমরা আ’লীগের অফিসে হামলা চালাবো ? তবে আওয়ামী লীগের অফিসে হামলাকারীরা সকলেই মুখোশ ও হেলমেটধারী ছিলো। বিএনপির নির্বাচনী অফিসে ভাঙচুর ও নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে হয়রানি করতে আ’লীগের নেতাকর্মীরাই নিজেদের এবং বিএনপির অফিস ভাঙচুর করেছে। উজিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শিশির কুমার পাল জানান, আওয়ামী লীগের অফিসে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় বিএনপির ৫১ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। তবে বিএনপির অফিস ভাঙচুরের ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত কোনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। পেলে অবশ্যই তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ