fbpx
31.6 C
Barisāl
Monday, June 21, 2021

উজিরপুরে বই পেলো নতুন বিদ্যালয়ের নতুন শিক্ষার্থীরা

শুভ উদ্বোধন আর ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে পথচলা শুরু করেছে বরিশালের উজিরপুর পৌর সদরে নতুন স্থাপিত “শেখ রাসেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়”। বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে উজিরপুর আলহাজ্ব বি.এন.খান ডিগ্রী কলেজ (বিদ্যালয়টির অস্থায়ী ক্যাম্পাস) এর একটি শ্রেণী কক্ষে ফিতা কেটে নতুন বিদ্যালয়টির উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি বরিশাল-২ আসনের নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য মোঃ শাহে আলম। এতে সভাপতিত্ব করেন শেখ রাসেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহি অফিসার (ইউএনও) মাসুমা আক্তার।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল-২ আসনের সদ্য বিদায়ী সংসদ সদস্য ও বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট তালুকদার মো: ইউনুস, উজিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান ইকবাল, ভাইস চেয়ারম্যান অপূর্ব কুমার বাইন রন্টু, সীমা রানী শীল, পৌর মেয়র মোঃ গিয়াস উদ্দিন বেপারী, উপজেলা আ’লীগের সভাপতি এস এম জামাল হোসেন, সম্পাদক আব্দুল মজিদ সিকদার বাচ্চু, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ শহিদুল হক, নতুন স্থাপিত বিদ্যালয়টির জমিদাতা আহম্মেদুর কবির বিপ্লব মোল্লা, পৌর কাউন্সিলর রিপন মোল্লা, বিদ্যালয়টি পরিচালনাকারী শিক্ষক অশোক কুমার দাস, শিক্ষিকা আঁখি আক্তার প্রমূখ।

পরে উপস্থিত প্রধান অতিথিসহ অন্যান্যরা শিক্ষার আলোয় সর্বত্র আলোকিত করার প্রত্যয়ে নতুন ভর্তি হওয়া বিভিন্ন শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরন করেন। প্রসঙ্গত, ইংরেজী ১৮১৮ সালে স্থাপিত উপজেলা পৌর সদরের ডব্লিউ. বি. মডেল ইউনিয়ন ইনস্টিটিউশন বিদ্যালয়টি ২০১৮ সালে জাতীয়করণ হওয়ায় সংকট ও ভোগান্তিতে পড়ে কয়েক শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী। এসব শিক্ষার্থীরা ওই বিদ্যালয়টিতে ভর্তি ইচ্ছুক হলেও সরকারী নিয়মানুযায়ী তারা ভর্তি হতে পারেনি। পৌর সদরে ছাত্রীদের জন্য শেরে বাংলা পাইলট বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয় থাকলেও ছাত্রদের লেখাপড়ার জন্য ওই বিদ্যালয়টি ছিলো একমাত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। যার ফলে চরম হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়ে ভর্তি বি ত শিক্ষার্থীরা। এক পর্যায়ে তারা বিক্ষুব্ধ হয়ে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দেন।

শিক্ষার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের এমন আগ্রহতে মুগ্ধ হয়ে শিক্ষানুরাগী উজিরপুর উপজেলা নির্বাহি অফিসার (ইউএনও) মাসুমা আক্তার পৌর এলাকায় একটি নতুন মাধ্যমিক বিদ্যালয় স্থাপনের আগ্রহ প্রকাশ করেন। তার আগ্রহকে স্বাগত জানিয়ে গত ৭ জানুয়ারী সকাল ১০টায় উপজেলা নির্বাহি অফিসার মাসুমা আক্তার, পৌরসভার জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এক আলোচনা সভায় করেন। ওই সভায় বিদ্যালয়টি স্থাপনের জন্য জমিদাতা হিসেবে বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত আঃ রশিদ মোল্লার তিন সন্তান আহমেদুল কবির বিপ্লব মোল্লা, রফিকুল ইসলাম শিপন মোল্লা ও পৌর কাউন্সিলর রিপন মোল্লা আগ্রহ প্রকাশ করেন। পরবর্তীতে তাঁরা বিদ্যালয়টির নামে পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড হানুয়া বারপাইকা গ্রামে ৫০ শতক জমি দলিলের মাধ্যমে বুঝিয়ে দেন। এরপরই সেখানে বিদ্যালয়টি স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়ে জমি নির্ধারণ করা হয়। এ বিষয়ে নব স্থাপিত শেখ রাসেল বিদ্যালয়ের সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহি অফিসার (ইউএনও) মাসুমা আক্তার এই প্রতিবেদকে জানান, আজ (বৃহস্পতিবার) থেকে বিদ্যালয়টিতে ভর্তি শুরু হয়েছে। আগামী সপ্তাহের শুরুতেই পাঠদান শুরু হবে। ইউএনও আরও জানান, ইতোমধ্যে বিদ্যালয়টির জন্য নির্ধারিত জমিতে নির্মাণের কাজের জন্য বালু ভরাট শুরু হয়েছে। তাছাড়া পৌর সদরে এ বিদ্যালয়টি স্থাপনের উদ্দ্যোগ নেয়া না হলে শত শত শিক্ষার্থীরা ভোগান্তিতে পড়তো।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ