fbpx
37.6 C
Barisāl
Wednesday, April 21, 2021

আগৈলঝাড়ায় ইউনুস খন্দকার হত্যা মামলায় নাটকীয় মোড় সিআইডির তদন্তে মামলার বাদীই হত্যাকারী হিসেবে সনাক্ত

এস এম শামীম, আগৈলঝাড়া

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় ইউনুস খন্দকার হত্যা মামলায় নাটকীয় মোড়। সিআইডির তদন্তে মামলার বাদীই হত্যাকারী হিসেবে সনাক্ত হয়েছে।

বরিশাল জোনের সিআইডির ওসি মো. সেলিম শাহ নেওয়াজ জানান, ২০১৫ সালের ২৯ নভেম্বর বিকেলে আগৈলঝাড়া উপজেলার দক্ষিণ বাগধা গ্রামে নিজের বাড়ির পাশ দিয়ে রাস্তা নির্মাণকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। প্রতিপক্ষের হামলায় ইউনুস খন্দকার গুরুতর আহত হয়। এ ঘটনায় ইউনুসের চাচাতো ভাই বাদশা খন্দকার বাদী হয়ে ১৯জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করে। মুমূর্ষ অবস্থায় ইউনুস খন্দকার ঢাকায় চিকিৎসারত অবস্থায় মারা যায়। ওই মামলাটি পরে হত্যা মামলায় রুপান্তর হয়।

ওই মামলার তদন্তভার পুলিশের হাত ঘুরে ডিবি’র হাতে যায়। ডিবি পুলিশ ১৬জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। নিহত ইউনুস খন্দকারের স্ত্রী তাছলিমা বেগম চার্জশীটের বিরুদ্ধে নারাজি দাখিল করলে আদালত মামলাটি তদন্তর জন্য সিআইডিকে নির্দেশ দেন। এর আগে নিহত ইউনুস খন্দকারের স্ত্রী তাছলিমা বেগম হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনায় মামলার বাদী বাদশার বিরুদ্ধে আদালতে একটি সিআর মামলাও করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডির এসআই মেহেদী হাসান জানান, উল্লেখিত ঘটনায় চলতি বছরের ১ সেপ্টেম্বর সোহেল মিয়া নামে একজনকে গ্রেফতার করে আদালতে হাজির করলে সোহেল মিয়া ১৬৪ ধারায় আদালতে ইউনুস খন্দকার হত্যায় খুনি হিসেবে তার চাচাতো ভাই ও বরিশাল আদালতের আইনজীবি সহকারী বাদশা খন্দকরের নাম বলেন।

সোহেলের স্বীকারোক্তি অনুযায়ি বাদশাকে রোববার গ্রেফতার করে সোমবার অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। তদন্তকারী অফিসার আদালতে বাদশার ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালতের বিচারক সিহাবুল ইসলাম রিমান্ড আবেদন পরবর্তী শুনানির জন্য দিন ধার্য করেন।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ