fbpx
31.3 C
Barisāl
Tuesday, June 22, 2021

আগৈলঝাড়ায় এসএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে শিক্ষাবোর্ড সচিব

পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের সই জালিয়াতি করে পরীক্ষায় অংশগ্রহন, ৪১ পরীক্ষার্থীর প্রবেশপত্র বাতিল, জড়িত শিক্ষা বোর্ডের চক্র! শিরোনামে গতকাল রোবরার বিভিন্ন পত্রিকায় একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হলে সংবাদটি দেখে গতকাল রোবরার এসএসসি পরীক্ষার দ্বিতীয় দিনে আগৈলঝাড়ায় বাংলা দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষা ও কেন্দ্র পরিদর্শনে আসেন বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড সচিব প্রফেসর বিপ্লব কুমার ভট্টাচার্জ। তিনি কেন্দ্র পরিদর্শন কালে আগৈলঝাড়া উপজেলার বাকাল নিরাঞ্জন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের সই জালিয়াতি করে পরীক্ষায় অংশগ্রহন করা সুব্রত দাসের সাথে কথা বলেন।
আগৈলঝাড়া উপজেলা সদরের শ্রী মতি মাতৃ মঙ্গল বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্র পরিদর্শন করেন শিক্ষাবোর্ড সচিব। বরিশাল মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড সচিব প্রফেসর বিপ্লব কুমার ভট্টাচার্জ বলেন, আমি ছাত্র সুব্রত দাসের সাথে কথা বলেছি। সুব্রত বলে শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের স্বাক্ষর, সিল ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পুলিন বিহারি জয়ধরের স্বাক্ষর, সিল জাল (সুব্রত) এবিষয়ে কিছুই জানেনা। এবিষয়ে তার (সুব্রত) মা উপজেলার বাকাল গ্রামের মৃত:হরিপদ দাস এর মেয়ে সবিতা রানী দাস ওরফে চম্পা সবকিছু জানেন।
শিক্ষাবোর্ড সচিব আরো বলেন, সবিতা রানী দাস ওরফে চম্পার সাথে কথা বলতে চাইলে সে কোন কথা বলতে রাজি হয়নি। পরে আমি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছ থেকে কাগজপত্র নিয়ে এসেছি। শিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের কাছে জমা দিবো এবং সে ব্যাবস্থা নিবেন।
এসময় তার সাথে ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড সেকসন অফিসার অসিমা দাস, শাকিলা আক্তার, শাহিন মিয়া, উচ্চমান সহকারী মাইনউদ্দিন, অমৃত লাল দে কলেজের প্রভাষক সচিন্দ্র নাথ রায়, নলছিটি কলেজের প্রভাষক জিয়া হায়দার।
উল্লেখ, বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মো. আনোয়ারুল আজিম এর স্বাক্ষর জাল করে প্রবেশপত্র তৈরী করা প্রবেশপত্রে রোববার বাংলা দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছিল বাকাল নিরঞ্জন বৈরাগী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সুব্রত দাস (রোল নং ৯০০৬৯১)। সুব্রত দাস উপজেলার বাকাল গ্রামের মৃত. হরিপদ দাসের মেয়ে সবিতা রানী দাস ওরফে চম্পার ছেলে। সুব্রত দাস বাকাল গ্রামে তার মামা বাড়ি থেকে পড়াশুনা করে আসছে। তার পিতা গৌরনদী উপজেলার চাঁদশি গ্রামের দীনেশ দাস।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ