fbpx
25.6 C
Barisāl
Wednesday, April 21, 2021

আগৈলঝাড়ায় প্রাণী সম্পদ কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্র ভেঙ্গে পড়ায় চিকিৎসা কার্যক্রম বন্ধ।

নিউজ ডেস্ক: বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার গৈলায় অবস্থিত প্রাণী সম্পদের কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্রটি ভেঙ্গে পড়ায় চিকিৎসা কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে অনেকদিন যাবৎ। ফলে এলাকার সাধারন জনগন পশু চিকিৎসা থেকে বি ত হচ্ছে। ১৯৬১ সাল থেকে উপজেলার গৈলা রথখোলা নামকস্থানে সরকারীভাবে একটি পরিত্যক্ত দ্বিতল ভবনে প্রতিষ্ঠিত হয় উত্তর বরিশালের এ কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্রটি। প্রায় চার যুগ ধরে পুরাতন ভবনটি সরকার কর্তৃক লিজ গ্রহণ করে প্রজনন কেন্দ্রটির কাজ চলে আসছিল। অদ্যাবধি ওই ভবনটিতে কখনই কোন ধরণের মেরামত বা সংস্কারের কাজ করা হয়নি। অনেক আগে থেকেই ভবনটি ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পরলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সেদিকে কোন নজর দেয়নি। ভবনের উপরে ও দেয়ালে নানা ধরণের গাছপালা জন্মে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। প্রতিনিয়ত ছাদ ধ্বসে সুরকি ও ইটের ভগ্নাংশ পরছে। এ উপজেলায় প্রাণী সম্পদের চিকিৎসার আর কোন কেন্দ্র নেই। প্রতিদিন দূরদূরান্ত থেকে গবাদিপশু নিয়ে লোকজন এখানে এসে নানান সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। এ ব্যাপারে এফএএআই মোঃ নুরউদ্দিন জানান, এই কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্রের ভবনটি যেকোন সময় ভেঙ্গে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। ভবনটির পাশ দিয়ে গৈলা বাজারে যাওয়া আসার জন্য রাস্তাটি দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার লোক সবসময় আতংকের মধ্যে যাতায়াত করে। ভবনটির চারপাশের দেয়ালে বড় ধরনের ফাটল দেখা দিয়েছে। বর্তমানে ভবনের একটি অংশ ভেঙ্গে পরেছে। ভবনটির সামনে জনৈক জৈনউদ্দিনের ঘরের বারান্দায় অস্থায়ীভাবে অফিস বসানো হয়েছে। এ ভবনটি সংস্কারের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে ২৫-৩০ বার আবেদন করার পরেও কোন ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হয়নি বলে মোঃ নুরউদ্দিন জানান। স্থানীয়ভাবে জানা গেছে, কৃত্রিম প্রজনন কেন্দ্রটি ১ একর ৩২ শতাংশ জায়গা নিয়ে তৈরি। কিন্তু স্থানীয় কিছু প্রভাবশালীরা দখল করে নেয়ায় বর্তমানে জায়গার পরিমাণ দাঁড়িয়েছে মাত্র ৪০ শতাংশে। অনতিবিলম্বে ভবনটি পুনঃ নির্মাণ ও সম্পত্তি দখলমুক্ত করার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছে এলাকার জনসাধারণ।

সর্বশেষ সংবাদ

সম্পর্কিত সংবাদ